অবশেষে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হ্নীলার মো: নুরের!

77

নিউজ ডেস্ক:

টেকনাফের হ্নীলায় দুর্বৃত্ত কর্তৃক রাতের আঁধারে মোটরবাইক আরোহী দুই যুবককে গুলি বর্ষণের মাধ্যমে হত্যা চেষ্টার ঘটনায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মোহাম্মদ নুর নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে এলাকায় চরম উৎকন্ঠা বিরাজ করছে।

বৃহস্পতিবার (২২ জুলাই) রাজধানীর পঙ্গু হাসপাতালে দীর্ঘ এক মাস মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাঁর মৃত্যু হয়।

জানা যায়, ১৯জুন (শনিবার) রাত ১০.১৫ মিনিটের দিকে হ্নীলাস্থ জাদিমুরা থেকে হ্নীলা বাজারে আসার পথে এ্যাকোয়া কালচার সংলগ্ন প্রধান সড়কের ব্রীজে চিহ্নিত দূবৃর্ত্তরা গাড়ি গতিরোধ করে পূর্ব রঙ্গিখালীর জনৈক নুর মোহাম্মদের স্ত্রী লেদা ক্যাম্পগামী রোহিঙ্গা নারীর স্বর্ণালংকার ছিনিয়ে নিচ্ছিল। এমতাবস্থায় মোটর সাইকেলযোগে মোঃ নুরেরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে সড়ক ডাকাতদের বাঁধা প্রদান করে। এতে সড়ক ডাকাত দল ক্ষুদ্ধ হয়ে বলে- তোকেই এতদিন খুঁজছি বলেই মুঠোফোন কেড়ে নেয় এবং হাতে থাকা দা-কিরিচ নিয়ে কোপাতে থাকে। এক পর্যায়ে উপর্যুপরি গুলিবর্ষণ করলে মোটর সাইকেলে থাকা স্থানীয় চেয়ারম্যান রাশেদ মাহমুদ আলীর ফুফাত ভাই হ্নীলা ঊলুচামরীর শওকত আলীর পুত্র মোঃ সওয়ার (৩২) এবং উলুচামরী লামার পাড়ার ছৈয়দ নুরের পুত্র মোঃ নুর (৩৫) কে হাতে এবং পায়ে গুলি করে। পরে ঘটনার খবর পেয়ে স্থানীয় লোকজন গুলিবিদ্ধদের দ্রুত উদ্ধার করে লেদা আইএমও হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যায়। সেখানে তাদের প্রাথমিক চিকিৎসার পর উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে হস্তান্তর করা হয়। ২০জুন মো: নুরের শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে বিকাল ৫টারদিকে গুরুতর আহত মোঃ নুরকে ঢাকা বারডেম হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

এ বিষয়ে স্থানীয় একটি মহলের দাবী, গুলিবিদ্ধ মোঃ নুর এবং হামলাকারীদের সাথে একযুগের অধিক সময় ধরে জমি নিয়ে দাঙ্গা-হাঙ্গামক, দখল-জবরদখল ও মামলা মোকদ্দামা চলে আসছে। দীর্ঘদিনের পুঞ্জিভূত ক্ষোভের জেরধরে সময়-সুযোগে মোঃ নুরকে একা পাওয়ায় প্রাণ নাশের চেষ্টা চালিয়েছে হামলাকারীরা।

এই ঘটনার বিষয়ে হ্নীলা ইউপি চেয়ারম্যান ও সদ্য স্থগিত ইউপি নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী রাশেদ মাহমুদ আলী বলেন, সড়কে গুলিবিদ্ধদের মধ্যে একজন আমার ফুফাত ভাই, অপরজন আমার একনিষ্ট কর্মী ও বন্ধু। হয়তো আমার বিরোধী কোনপক্ষ ঈর্ষান্বিত হয়ে নৌকার পক্ষে কাজ করবার অপরাধে তাদের হত্যার চেষ্টা চালিয়েছিল। অবশেষে মো: নুরের মৃত্যুর মধ্য দিয়ে তাদের পরিকল্পনা সফল হয়েছে। আমি এই ঘটনা তথা মো: নুরের হত্যার তীব্র নিন্দা জানিয়ে প্রকৃত ঘটনার রহস্য উদঘাটন করে অপরাধীদের আইনের আওতায় আনার জোর দাবী জানাচ্ছি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here