উখিয়াতে মধ্যযুগীয় কায়েদায় নির্যাতনের ঘটনায় অভিযুক্তদের গ্রেফতার করলো পুলিশ!

50

নিউজ ডেস্ক:

কক্সবাজারের উখিয়ায় মোবাইল চুরির অভিযোগে নারকীয় কায়েদায় দুই কিশোরকে গাছে বেঁধে অমানুষিক নির্যাতনের ঘটনায় অবশেষে দুই অভিযুক্ত আইনের জালে আটক হয়েছে।

১৭ জুলাই (শনিবার) আনুমানিক বিকাল ৪টার দিকে কক্সবাজারের উখিয়ার থাইংখালি হাকিমপাড়া গ্রামের একটি বসতবাড়ির উঠানে হাত-পা বেঁধে দুই কিশোরকে চুরির অভিযোগে নির্দয়ভাবে প্রহার করেছিল দুই ব্যক্তি। উক্ত নির্যাতনের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে তা দ্রুত ভাইরাল হয়ে যায়। এক পর্যায়ে ভিডিওটি বাংলাদেশ পুলিশের মিডিয়া এন্ড পাবলিক রিলেশন্স উইং এর দৃষ্টিগোচর হলে ভিডিওসহ লিংকটি উখিয়া থানার ওসি আহাম্মদ সনজুর মোরশেদকে পাঠিয়ে আসামীদেরকে খুঁজে বের করে দ্রুত আইনের আওতার আনার জন্য নির্দেশনা প্রদান করেন। একই সাথে উখিয়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শাকিল আহমেদকে বিষয়টি তদারকির জন্য বলা হয়।

এরই প্রেক্ষিতে উখিয়া থানার ওসি আহাম্মদ সনজুর মোরশেদের নেতৃত্বে উখিয়া থানার একটি টিম তাৎক্ষনিকভাবে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। পাশাপাশি ওসি উখিয়ার নির্দেশে সাদা পোশাকের আরও একটি টিম ঘটনার আদ্যোপান্ত জানতে মাঠে নামে। টিম দুটি দুর্গম পাহাড়ি এলাকার বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করে অবশেষে ১৮ জুলাই আনুমানিক দুপুর ১টার দিকে অভিযুক্ত আব্দুস সালাম ও জাহাঙ্গীর আলমকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।

প্রাথমিক তদন্তে জানা যায়, মোবাইল চুরির অভিযোগ তুলে দুই কিশোরকে জনসমক্ষে নির্মমভাবে নির্যাতন করা হয়।
এ বিষয়ে ওসি উখিয়ার কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, “কক্সবাজার জেলার পুলিশ সুপার মো. হাসানুজ্জামান (পিপিএম) সার্বিক বিষয়টি নিবিড়ভাবে তদারকি করে প্রয়োজনীয় দিক-নির্দেশনা প্রদান করেন। পাশাপাশি নির্যাতনের এই ঘটনায় আইনী ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে”।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here