করোনা ফোর্স হ্নীলা তহবিলের দ্বিতীয় ধাপে ৩০০ হতদরিদ্র, কর্মহীন ও অসহায় মানুষের কাছে ইদ উপহার বিতরণ

3

বাংলাদেশের সর্বদক্ষিণের টেকনাফে নতুন মাইলফলক সৃষ্টি করা স্বেচ্ছাসেবী মানবিক সংগঠন করোনা ফোর্স হ্নীলা। পৃথিবীজুড়ে করোনা মহামারিতে মানুষের জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়লে ২০২০ সালের ২৯ মার্চ হতদরিদ্র, কর্মহীন ও অসহায় মানুষের পাশে থাকবার তাড়নায় করোনা ফোর্স হ্নীলা নামের সংগঠনটির আত্মপ্রকাশ ঘটে। গতবছর থেকে আজাবধি এ মানবিক সংগঠনটি সাধারণ মানুষের পাশে থেকে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। এবং দুর্নামে ভরা টেকনাফে এক নতুন দিগন্তের উন্মোচন করছে এ স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনটি। ৫০ এর অধিক স্বেচ্ছাসেবক নিয়ে হ্নীলা ইউনিয়নের বিত্তবান ও মানবিক মানুষের আর্থিক সহয়তাকে সমন্বয় করে সাধারণ মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিচ্ছে উপহারসামগ্রী। গতবছরও দুধাপে ১ হাজার মানুষকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছিলো আর্তমানবতার সেবায় নিয়োজিত করোনা ফোর্স হ্নীলা সংগঠনটি। গতবছরের ন্যায় এবছরও করোনার প্রকোপ বেড়ে গেলে এ সংগঠনের স্বেচ্ছাসেবকগণ ফান্ড কালেকশন করে প্রায় ৭০০ পরিবারের মাঝে ইদ উপহার বিতরণ করবার প্রত্যয় ব্যক্ত করে।
আজ ১০ মে, রোজ সোমবার দুপুর ২টায় হ্নীলা উচ্চ বিদ্যালয় ক্যাম্পাস মাঠে ৩০০ হতদরিদ্র, কর্মহীন ও অসহায় মানুষের মাঝে দ্বিতীয় ধাপে ইদ উপহারসামগ্রী বিতরণ করে।
করোনা ফোর্স হ্নীলার মুখপাত্র ও কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক তারেক মাহমুদ রনি বলেন, আমাদের এ মানবিক কার্যক্রম ইনশাআল্লাহ সামনের দিনেও চলতে থাকবে। আমরা করোনা ফোর্স হ্নীলার স্বেচ্ছাসেবকগণ মানুষের যেকোনো বিপর্যয়ে আগামী দিনেও কোনো কার্পণ্য ছাড়া পাশে থাকবো।
করোনা ফোর্স হ্নীলার আরেক মুখপাত্র ও কক্সবাজার সিটি কলেজের প্রভাষক এহ্সান উদ্দিন বলেন, করোনা মহামারির বৈশ্বিক ক্রাইসিসে মানুষ যখন ঘরবন্দি হয়ে পড়েন, তখন করোনা ফোর্স হ্নীলার মানবিক স্বেচ্ছাসেবকগণ জান বাজি রেখে সাধারণ মানুষের পাশে থাকবার চেষ্টা করেছেন। যাঁরা আমাদের মানবিক ডাকে সাড়া দিয়ে আর্থিকভাবে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন, তাঁদের প্রতিও অশেষ কৃতজ্ঞতা। ইনশাআল্লাহ আমাদের এ মানবিক কার্যক্রম অনাগত দিনে যেকোনো দুর্যোগ দুর্বিপাকে সবসময় চলমান থাকবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here