রোহিঙ্গাদের ৪জি ইন্টারনেট ব্যবহার করতে দেয়া উচিত : UNHCR

21

নিউজ ডেস্ক:

বাংলাদেশে অবস্থানরত রোহিঙ্গাদের দ্রুতগতির ৪জি ইন্টারনেট সেবা ব্যবহার করতে দেয়ার পক্ষে মত দিচ্ছে জাতিসংঘের UNHCR।

যুক্তি হিসেবে তারা আন্তর্জাতিক বিশ্বের সাথে রোহিঙ্গাদের যোগাযোগের প্রয়োজনীয়তাকে গুরুত্ব দিচ্ছে।

UNHCR এর উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাবৃন্দ বর্তমানে কক্সবাজারেই অবস্থান করছেন।বিভিন্ন সময়ে রোহিঙ্গাদের প্রতি আরো নমনীয় হওয়া,ভাসানচরে রোহিঙ্গাদের পুনর্বাসনের বিরোধীতা করা,রোহিঙ্গাদের আন্তর্জাতিক আইনের সাথে মান রেখে সহজভাবে চলাফেরা সহ নানাবিধ দেশবিরোধী দাবী উল্লেখ করে আসছে UNHCR।

অসমর্থিত সুত্রানুসারে বিশ্বব্যাংক এবং UNHCR বিভিন্ন ফোরামে বাংলাদেশকে রোহিঙ্গাদের ”মেনে” নেয়ার আহবান ও জানিয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

যদিও UNHCR টেকনাফ,কুতুপালং,উখিয়াতে ধ্বংস হতে চলা বনাঞ্চল এবং প্রাকৃতিক জীববৈচিত্র,রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী এবং উগ্র হতে বসা রোহিঙ্গাদের হাতে সম্পদ হারানো বাংলাদেশীদের পুনবার্সন এবং ক্ষতিপূরণ দেবার ব্যপারে আন্তর্জাতিক ফোরামে তেমন কোন উৎকন্ঠা জানায় না।

উল্লেখ্য, রোহিঙ্গাদের জন্য প্রতিবছর বিপুল হারে বাংলাদেশের নিজস্ব অর্থ খরচ হচ্ছে।কক্সবাজারে ৫ তারকা হোটেলে রাজকীয় জীবন কাটাচ্ছেন UNHCR এর উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা কর্মচারীবৃন্দ।

বাংলাদেশকে রোহিঙ্গাদের ব্যপারে বিভিন্ন পরামর্শ দেয়া UNHCR এবং তাদের এজেন্ডাভুক্ত আন্তর্জাতিক মহল এখনো রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠানোর ব্যপারে মিয়ানমারের সাথে তেমন কোন উল্লেখযোগ্য আলোচনা করতে না পারলেও রোহিঙ্গাদের ইন্টারনেট কানেকশন ”চতুর্থ প্রজন্মের” করার ব্যপারে ব্যাপক আগ্রহী।

এ সংস্থাটি জাতিসংঘের আওতাভুক্ত হলেও বাংলাদেশের সার্বভৌমত্ব বিবেচনায় এ সংগঠনটির দাবী-দাওয়া বর্তমানে যথেষ্ট সন্দেহজনক। বাংলাদেশ রোহিঙ্গাদের জন্য যা করেছে তা বিশ্বমন্ডলে আর কোন দেশ করতে পারেনি। তা সত্বেও বারবার বিভিন্ন প্রশ্নবিদ্ধ দাবী তোলার প্রেক্ষিতে এই সংগঠনটির এজেন্ডা এবং এর কক্সবাজারস্থ অফিসের যাবতীয় নথি কার্যকলাপ নজরদারী করা এখন সময়ের দাবী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here