রোহিঙ্গা ইস্যুতে নিরব দর্শকের ভূমিকায় ভারত

82

জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে মিয়ানমারের প্রতিনিধি মিয়ানমারের রোহিঙ্গাসহ অন্য সংখ্যালঘুদের মানবাধিকার পরিস্থিতি সংক্রান্ত জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনের একটি প্রস্তাবে ভোট দেওয়া থেকে বিরত ছিল ভারতসহ ২৬টি দেশ। চীন ও রাশিয়া এবারও মিয়ানমারের পক্ষে ভোট দিয়েছে।

গত বৃহস্পতিবার ২০২০ সালের শেষ কর্মদিবসে প্রস্তাবটিতে মিয়ানমারের বিপক্ষে ভোট দিয়েছে ১৩০টি দেশ।

জাতিসংঘের ৭৫তম সাধারণ অধিবেশনের ৪৮তম সভা শেষে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। সভায় জাতিসংঘের বাজেট অনুমোদনসহ ২৫টি প্রস্তাব নিয়ে আলোচনা হয়।

মিয়ানমারে মানবাধিকার পরিস্থিতি বিষয়ক প্রস্তাবে মিয়ানমারের পক্ষে ভোট দিয়েছে চীন, রাশিয়া, বেলারুশ, কম্বোডিয়া, লাওস, ফিলিপাইন, ভিয়েতনাম ও জিম্বাবুয়ে।

গতবার মিয়ানমারের পক্ষে ভোট দেওয়া ক্যামেরুন, গিনি, নামিবিয়া, কেনিয়া, লেসেথো, মোজাম্বিক, তানজানিয়া, পালাউ ও সলোমন দ্বীপপুঞ্জ এ নয়টি দেশ এবার দেশটির বিরুদ্ধে ভোট দিয়েছে। ভোট দেওয়া থেকে বিরত ছিল ভারত, ভুটান, জাপান, মঙ্গোলিয়া, সিঙ্গাপুর, থাইল্যান্ড, শ্রীলংকা, হাঙ্গেরি, নাইজেরিয়া, ভেনিজুয়েলাসহ ২৬টি দেশ।

মিয়ানমারে কাচিন, রাখাইন, দক্ষিণ চীন ও শান রাজ্যে সামরিক ও নিরাপত্তা বাহিনীর দ্বারা গুরুতর মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে খসড়া প্রস্তাবটি গৃহীত হয় সভায়।

সভায় জাতিসংঘে মিয়ানমার প্রতিনিধি প্রস্তাবের বিপক্ষে তার দেশের অবস্থানের ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে বলেন, এতে মানবাধিকারকে রাজনৈতিক হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে। এটা মিয়ানমারের অভ্যন্তরীণ বিষয়। দেশের ভেতরে মানবাধিকার রক্ষায় মিয়ানমার ব্যবস্থা নিয়েছে এবং সম্প্রতি নির্বাচিত সরকারের নেতারা মানবাধিকার লঙ্ঘনকে প্রশ্রয় দিচ্ছেন না।

রোহিঙ্গাসহ অন্যান্য সংখ্যালঘুদের সঙ্গে মিয়ানমার সরকার আলোচনায় অংশ নিতে আগ্রহী বলে জানায় মিয়ানমার প্রতিনিধি দল। তবে তারা প্রস্তাবটিকে স্পষ্টভাবে প্রত্যাখ্যান করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here